Positive Displacement Pump Maintenance অভিজ্ঞতা শেয়ার।

/ posted in: Engineering / posted by: Mahmud Hossain

আজ আমার কাজের ছোট একটা বিষয় শেয়ার করছি। এ ব্যাপারে আপনাদের মূল্যবান মন্তব্য বিষয়টিকে সবার কাছে মজার করে তুলবে বলে আশা করছি।

আমি একটা কম্বাইন্ড সাইকেল পাওয়ার প্লান্টে রক্ষণাবেক্ষণ (Mech. Maintenance) বিভাগে কাজ করছি

আমাদের HRSG তে অ্যামোনিয়া ডোজিং করতে হয়, একটা নির্ধারিত PH Conductivity মাত্রা ঠিক রাখার জন্য তো সেই অ্যামোনিয়া দেয়ার জন্য আমাদের এখানে ডায়াফ্রাম টাইপ পজিটিভ ডিস্প্লেসমেন্ট পাম্প আছে

একদিন অপারেশনের আমাদের বড় ভাইয়ারা কাজের রিকুয়েস্ট দিলেন- পাম্পের প্রবাহ ঠিক নাই, সিস্টেম Conductivity কমে যাচ্ছে

সমস্যা পাবার পর পড়াশুনা শুরু হল সহজ রাস্তা হলো ভেন্ডর ম্যানুয়াল দেখা দেখলাম সেখানে কতগুলো সমাধান বলা আছে

সেগুলো নিচে দিলামঃ

১। বাতাসের বুদবুদ জমেছে।

২। পাম্পের সাকশন পাশে স্ট্রেইনারে ময়লা জমেছে।

৩। ট্যাংকের অ্যামোনিয়ার পরিমাণ কম মানে সাকশন পাশে পর্যাপ্ত চাপ নাই।

৪। লাইন সেইফটি ভাল্ব দিয়ে অ্যামোনিয়া ফেরত আসছে সাকশন পাশে।

৫। পাশের পাম্প দিয়ে অ্যামোনিয়া ট্যাংকে ফেরত আসতেছে।

৬। ডায়াফ্রাম ফেটে গেছে।

৭। ডায়াফ্রামের ও রিংগুলো ঠিক নাই।

এখন আমি উল্লিখিত কারণগুলো একে একে দূর করতে লাগলাম।

এটা ছিল এই পাম্পে দায়িত্বের সাথে প্রথম কাজ। তাই আগে প্রথম কাজ করলাম যে পাম্পটা খুলে নিয়ে মেরামত কক্ষে নিয়ে এসে প্রতি পার্ট এর কাজ কি, সে কিভাবে কাজ করে এটা বুজার চেষ্টা করলাম। মোটামুটি ঘণ্টাখানেকের মধ্যে সবকিছু পরিষ্কার করে, নতুন ডায়াফ্রাম লাগিয়ে, ও-রিং গুলো চেক করে, সাকশন ও ডেলিভারি ভাল্বের লিক টেস্ট করে পাম্প এসেম্বলি করে পাম্পের পজিশনে লাগিয়ে দিলাম।

পাম্পের সাকশন স্ট্রেইনারটা চেক করলাম। পরিষ্কার ই পেলাম, আরেকটু পরিষ্কার করে লাগিয়ে দিলাম।

এবার গ্লিসারিন চেম্বারে গ্লিসারিন ধীরে ধীরে দিলাম, সাথে সাথে বাতাসের বুদবুদ বের করে দিতে থাকলাম। সবকিছু করে দেয়ার পর পাম্প চালু করলাম, কিন্তু কিছুই পাম্প হলো না। চেম্বার থেকে কোন বাতাসের বুদবুদও আর বের হচ্ছে না। তবে আর সমস্যা কোথায়? মেজাজ খারাপ করে সেদিনের কাজ বন্ধ করে অফিস শেষ করে চলে গেলাম। পরদিন সকালে এসে পাম্প চালু করতেই ঠিক প্রবাহে পাম্পিং শুরু হলো।

কাজের প্রথম অভিজ্ঞতা হলোঃ পাম্পিং কম হওয়ার অন্যতম প্রধান কারণ হলো গ্লিসারিন চেম্বারে বাতাসের বুদবুদ জমা হওয়া। প্রথম দিন কোথাও একটু লুকিয়ে ছিল, পরে স্থিতাবস্থার পর সেটা বের হয়ে গেছে।

আমার এই প্রথম অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে এরপর একে একে কয়েকবার এই সমস্যা সমাধান করেছি।

কিন্তু মাস ছয় পরে আবার প্রবাহ কমের জন্য কাজের রিকুয়েষ্ট আসল। তো বেশ বুক ফুলিয়ে গেলাম আগের সব অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে সফলতার মুখ দেখলাম না। আরো গভীর ভাবে চিন্তাভাবনা শুরু হলো। কি করা যায়, কি করা যায়। এবার ডায়াফ্রাম, ও-রিং, সাকশন ও ডিসচার্জের চেক ভাল্ব, রিলিফ ভাল্ব সব বদলানো হল। এরপর ও ব্যর্থ। আর কি করব। ভাইদের বললাম ট্যাংকের অ্যামোনিয়ার দ্রবণ বাড়ান। পরের দিন পাম্প চালু করলাম দেখি পাম্পিং হচ্ছে। কিন্তু একটু কম। উল্লেখ্য এবার এই পাম্প এর ড্রাইভারের ভেরিয়বল ফ্রিকুয়েন্সি ড্রাইভটা বাইপাস করা। আমার ধারণা হচ্ছে এর প্রভাবে প্রবাহ একটু কম।

এখানে আরো কিছু পড়ার বিষয় আছে। আপনাদের কাছে অভিমত আশা করছি। ডোজিং পাম্প এ ভেরিয়বল ফ্রিকুয়েন্সি ড্রাইভ কেন দেয়? স্ট্রোকের সাথে এর সম্পর্ক, এটা যে পাম্প ড্রাইভে লাগানো থাকে সেখানে একে বাইপাস করে চালালে তার প্রভাব কি হয়?

আমার অভিজ্ঞতা হলো এই ড্রাইভ থাকলে পাম্প স্টার্ট খুব ধীরে ধীরে শুরু হয়ে ফুল স্পীডে যায়, পাম্পের স্ট্রোক মসৃণ হয়।

আমি এখন এই বিষয়টা নিয়ে পড়াশুনা করছি। আশা করছি এই বিষয় নিয়ে আরো কিছু লিখব।

 

 

 

 

 

নামঃ আব্দুল্লাহ (ছদ্মনাম)

যন্ত্রকৌশল প্রকৌশলী (‘০৭ বুয়েট)